Indian Visa

Indian Visa Application Online Form & Appointment Process

How to Apply for Indian Visa Online

  • প্রথমে ইন্ডিয়ান ভিসা এপ্লিকেশনের ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনার পূর্ণাঙ্গ তথ্য দিয়ে এপ্লিকেশন ফর্মটি পূরণ করুন।
  • ঠিকঠাক মত ফর্মটি ফিলাপ করার পর আপনি একটি ওয়েব ফাইল নম্বর পাবেন।
  • সাধারন এপ্লিকেশনের ক্ষেত্রে ৫-১০ দিন ও জরুরী এপ্লিকেশনের ক্ষেত্রে ২৪-৪৮ ঘন্টার মধ্যে এপয়েন্টমেন্ট ডেট কন্ফার্ম করা হয়। কন্ফার্ম করার ঠিক এক সপ্তাহ পরের ডেট পাওয়া যায়। অর্থাৎ যদি ১ তারিখে ডেট কন্ফার্ম করা হয়, তাহলে ৮ তারিখে ভিসা অফিসে যাওয়ার সময় ধার্য করা হয়।
  • আপনি ইন্ডিয়ান ভিসা এপ্লিকেশনের ওয়েবসাইট থেকে এপয়েন্টমেন্ট ডেট সহ আপনার এপ্লিকেশন ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে নিবেন।
  • নির্দিষ্ট ডকুমেন্ট ও পাসপোর্ট সহ আপনার এপ্লিকেশন ফর্মটি এপয়েন্টমেন্ট এর সময় অনুযায়ী ভিসা অফিসে জমা দিতে হবে।
  • সব ডকুমেন্ট ঠিক থাকলে ২-৩ দিনের মধ্যে আপনি ভিসা সহ পাসপোর্টটি ফেরত পেয়ে যাবেন।
  • সম্পূর্ণ প্রশেসটি সম্পণ্য করতে ১০ থেকে ২০ দিন সময় লাগে।

 

Indian Visa Application Requirements

ইন্ডিয়ান ভিসার জন্য প্রয়োজনীয় সাধারন ডকুমেন্ট সমুহ ভিসা ফর্ম জমা দেয়ার সময় জমা দিতে হবেঃ

১. অরিজিনাল পাসপোর্ট, পাসপোর্টে অন্তত ৬ মাসের মেয়াদ ও ভিসার জন্য অন্তত দুইটি পাতা খালি থাকতে হবে। সাথে পাসপোর্টের প্রথম ৪পৃষ্ঠা ও ডলার ইন্ডোর্সমেন্টের পাতার ফটোকপি সত্যায়িত করে জমা দিতে হবে। পুরাতন পাসপোর্ট থাকলে সেটা সঙ্গে জমা দিতে হবে।
২. একটি সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজ রঙ্গিন ছবি।
৩. জাতীয় পরিচয় পত্র ও ইউটিলিটি বিল (যেমনঃ ইলেক্ট্রিসিটি বিল, ফোন, গ্যাস বা পানির বিল)-এর ফটোকপি।
৪. চাকরীর ক্ষেত্রে অফিসের ছাড়পত্র, ব্যবসার ক্ষেত্রে ট্রেড লাইসেন্স ও শিক্ষার্থীর ক্ষেত্রে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দ্বারা প্রদত্ত্ব পরিচয় পত্রের ফটোকপি সত্যায়িত করে জমা দিতে হবে।
৫. ব্যাংক থেকে $150 এন্ডোর্সমেন্ট এর সার্টিফিকেট বা আন্তর্জাতিক ক্রেডিট কার্ডের ফটোকপি বা কমপক্ষে ১০,০০০টাকা জমাকৃত ব্যাংক স্টেটমেন্ট।
৬. রেজিষ্ট্রেশন নম্বর ও এপয়েন্টমেন্ট ডেট সহ অনলাইন ভিসা আবেদন পত্রের প্রিন্ট কপি।

Indian Visa Application Form Fill-up Process

প্রথম পাতাঃ

  • ১) Indian Mission: এখানে ক্লিক করলে তালিকা দেখতে পাবেন। আপনার নিকটবর্তী স্থানটি সিলেক্ট করে দিন। শুধুমাত্র চট্টগ্রাম ও রাজশাহী ছাড়া সবাই Bangladesh-Dhaka সিলেক্ট করুন।
    মিশন সিলেক্ট করার সাথে সাথে একটি পপ-আপ আসবে, সেখানে লেখা থাকবেঃ Please note down the Temporary Application ID: আপনি নোট প্যাডে কিম্বা ওয়ার্ডে  IDটা কপি করে রেখে দিন। কোন কারন বসত: ১/২ পেজ লেখার পরে ঝামেলা হলে এই আইডি দিয়ে শেষ যে পেজে লিখেছেন সেখানে যাওয়া যাবে। ID টি দেখতে এইরকম হবে: 48141826KJ23TBG
  • ) Surname: এখানে পবদবী লিখতে হবে যেমন, কারো নাম Md. Monirul Islam Sarder, এ ক্ষেত্রে Surname Sarder লিখতে হবে। Kartick Chandra Chowdhury. এ ক্ষেত্রে Chowdhury লিখতে হবে। ঠিক পাশপোর্টে যেভাবে লেখা আছে, যদি Md. Monirul Islam টুকু লেখা থাকে তবে Islam লিখতে হবে।
  • ) Given Name: কারো নাম Md. Monirul Islam Sarder, এ ক্ষেত্রে Md. Monirul Islam লিখতে হবে। Kartick Chandra Chowdhury. এ ক্ষেত্রে Kartick Chandra লিখতে হবে। ঠিক পাশপোর্টে যেভাবে লেখা আছে, যদি Md. Monirul Islam টুকু লেখা থাকে তবে Md. Monirul লিখতে হবে।
  • ) Have you ever changed your name? কিছু করার দরকার নাই।
  • ) Sex: ক্লিক করলেই Male, Female বেরিয়ে আসবে। পুরুষ হলে Male আর মহিল হলে Female সিলেক্ট করবেন।
  • ) Date of Birth: পাশপোর্টে যেভাবেই থাক না কেন, আপনি 21/05/1980 এভাবে লিখবেন। দেখবেন পাশপোর্টে যে তারিখটি দেওয়া আছে সেটি লিখবেন। জন্ম নিবন্ধন বা ভোটার আইডি কার্ডের জন্ম তারিখ নয়।
  • ) Town/City of birth: পাশপোর্টে জন্ম তারিখের উপরে যে জায়গাটির নাম লেখা আছে সেটি লিখবেন, যেমন- Satkhira, Dhaka,Dacca ইত্যাদি।
  • ) Country of birth: সিলেক্ট Bangladesh. আপনার পাশপোর্টে যদি অন্য দেশের নাম থাকে তবে তাই লিখবেন।
  • ) Citizenship/National Id No: পাশপোর্ট হোল্ডারের আইডি কার্ডের নং যেমন, 87104771894578, যদি আই ডি কার্ড না থাকে তবে NA লিখবেন।
  • ১০) Religion: ধর্ম, মুসলিম হলে Muslim, হিন্দু হলে Hindu সিলেক্ট করে দিন।
  • ১১) Visible identification marks: কোন বিশেষ লক্ষনীয় চিহ্ন, পাশপোর্টে লেখা আছে। যদি না থাকে তা হলে Nil লিখুন।
  • ১২) Educational Qualification: শিক্ষগত যোগ্যতা। প্রয়োজন মতো করে দিন। Marticulation, Below Marticulation, Graduate ইত্যাদি।
  • ১৩) Nationality: Bangladesh সিলেক্ট করে দিন।
  • ১৪) Did you acquire citizenship by birth or by naturalization? ঝামেলা এড়াতে by birth করে দিন।
  • ১৫) Prev. Nationality এই অপসননটি পূরন করা লাগবে না।
  • ১৬) Passport No: ঠিক পাশপোর্টে যেভাবে লেখা আছে কোন Space হবে না. যেমন Y0725841
  • ১৭) Place of Issue: বইতে লেখা আছে, যেমন, Satkhira,Khulna,Dhaka ইত্যাদি।
  • ১৮) Date of Issue: ঠিক জন্ম তারিখ যেভাবে লিখেছিলেন সেভাবে লিখুন। পাশপোর্ট বইতে দেওয়া আছে।
  • ১৯) Date of Expiry: ছবির নিচেই তারিখটি দেওয়া আছে। সেটি লিখুন।
  • ২০) Any other valid Passport/Identity Certificate(IC) held ,Yes/ No এখানে No-তে ক্লিক করুন। তারপর
  • ২১) Save and Continue-এ ক্লিক করে ২য় পাতায় যাবেন।
Indian Visa Application Form - Page 1

Indian Visa Application Form – Page 1

 

দ্বিতীয় পাতা

  • Present Address: এখানে পাশপোর্টধারীর পূর্ন ঠিকানা লিখবেন। প্রথমে Post লিখবেন। তার পর অন্যান্য সব।
  • Applicant’s Present Address (with post code).Maximum 35 characters
  • Village/Town/City: এখানে গ্রাম/শহর/নগর যেটা প্রযোজ্য হবে সেটি লিখবেন।
  • State/Province/District: জেলার নাম লিখবেন।
  • Postal/Zip Code: আইডি কার্ডের অপর পিঠে পোষ্টাল কোড দেওয়া আছে। সেখান থেকে দেখে লিখে দিন।
  • Country: BANGLADESH সিলেক্ট করুন।
  • Phone No. পাশপোর্টধারীর ফোন নং থাকলে লিখতে হবে, না থাকলে লেখার দরকার নেই।
  • One Contact No is Mandatory
  • Mobile No. পাশপোর্টধারীর ফোন নং যদি থাকে লিখতে হবে, না লিখলে ৩য় পেজে যাবে না।
  • Email Address : না লিখলে কোন অসুবিধা নেই।
  • Click Here for Same Address : যদি বর্তমান এবং স্থায়ী ঠিকানা একই হয় তবে ছোট্র ধরটিতে ক্লিক করলেই হবে। ভিন্ন হলে পমপোর্ট দেখে যে ঠিকানা লেখা আছে সেটি টাইপ করে লিখে দিন।
  • Permanent: *
  • Applicant’s Premanent Address(with post code) : পাশপোর্টে যদি ভিন্ন ঠিকানা লেখা থাকে তবে সেটা লিখুন নয়তো উপরের টিক বক্সে ক্লিক করুন।
  • Father’s Details
  • Name : পমপোর্ট ধারীর পিতার নাম লিখুন।
  • Nationality : জাতীয়তাBANGLADESH লিখুন।
  • Previous Nationality : এখানেও BANGLADESH লিখতে হবে।
  • Mother’s Details
  • Name : মায়ের নাম পাশপোর্টে যে ভাবে লেখা আছে সেইভাবে লিখুন।
  • Nationality : জাতীয়তাBANGLADESH সিলেক্ট করুন।
  • Previous Nationality : এখানেও BANGLADESH লিখতে হবে।
  • Place of Birth : মায়ের জন্ম স্থান অথবা জেলার নাম লিখে দিলেও হবে।
  • Country of Birth :BANGLADESH লিখুন।
  • Applicant’s Marital Status : বৈবাহিক অবস্থা। বিবাহিত হলে Married, অবিবাহিত হলে Unmarried লিখুন।
  • Spouse’s Details
  • Name: পাশপোর্ট হোল্ডারের কাছ থেকে স্ত্রীর/স্বামীর নাম জেনে নিয়ে লিখুন।
  • Nationality: BANGLADESH লিখুন।
  • Previous Nationality : এখানেও BANGLADESH লিখতে হবে।
  • Place of Birth: জেলার নাম লিখুন
  • Country of Birth :BANGLADESH লিখুন।
  • Were your Grandfather/ GrandMother (paternal/maternal) Pakistan Nationals or Belong to Pakistan held area. Yes No । No-তে ক্লিক করুন।
  • Present Occupation : অনেক সময় পাশপোর্টের দেওয়া পেশার সাথে ফরমের পেশার মিল থাকে না। তাই আপনি যদি দেখেন তবে Business Man করে দিতে পারেন। সেক্ষেত্রে তাকে অবশ্যই ট্রেড লাইসেন্স নিতে হবে।
  • Specify below occupation details of *
  • In case of HouseWife/Student/Minor Please specify Spouse/Parent’s Occupation details.
  • Employer Name/business: Manik Store. লিখে দিলে এই নামে অবশ্যই ট্রেড লাইসেন্স নিতে হবে।
  • Designation: Proprietor লিখে দিবেন।
  • Address: নিকটবর্তী বাজারের নাম লিখুন।
  • Phone: পাশপোর্ট হোল্ডারের ফোন নং লিখুন।
  • Department: কিছুই লেখার দরকার নেই।
  • Monthly Income : যে কোন একটি আয় বলূন যেমন, ৫০০০/, ১০০০০/ ইত্যাদি
  • Past Occupation, if any : কোন কিছুই লেখার দরকার নেই।
  • Are/were you in a Military/Semi-Military/Police/Security. Organization? Yes / No. If yes,give details. No-তে ক্লিক করুন।
  • Save and Continue-এ ক্লিক করে ৩য় পাতায় যাবেন।

 

তৃতীয় পাতা

  • Type of visa: সিলেক্ট করে দিন। Tourist হলে Tourist সিলেক্ট করে দেবেন। না হলে যে জন্য আপনি যাচ্ছেন সেটা উর্লেখ করে দিবেন।
  • Duration of Visa (in Months): সাধারণত: ১ মাসের জন্য সবাই ভিসা নেয়। সামর্থ থাকলে আপনি বেশী সময়ের জন্য ভিসা নিতে পারেন। মনে রাখবেন প্রতি দিনের জন্য ৫ ডলার হিসাবে ডলার এনডোর্স করতে হবে। অথবা ব্যাংক ষ্টেটমেন্ট নিতে হবে। কমপক্ষে ১৫ হাজার টাকা একাউন্টে থাকতে হবে।
  • No. of Entries: Single লিখবেন। ব্যবসায়ী হলে Multiple করতে পারেন। গ্রাহকের চাহিদা অনুসারে।
  • Purpose of Visit: ক্লিক করলেই অপশন বেরিয়ে আসবে। যেমন Meeting friends/relatives ইত্যদি।
  • Expected Date journey: যাওয়ার একটি আনুমানিক তারিখ লিখুন। যে দিন কাজটি করছেন কমপক্ষে ১০ দিন পরের তারিখ লিখবেন।
  • Port of Arrival in India: ক্লিক করলেই অপশন বেরিয়ে আসবে। যে পোর্ট দিয়ে যেতে চান সেটিতে ক্লিক করুন। কিম্বা পাশপোর্ট হোল্ডারের কাছ থেকে জেনে নিন।
  • Port of Exit from India: অটো চলে আসবে। এখানে কিছু করার নেই।
  • Have you ever visited India before? Yes / No: পাশপোর্টে দেখে নিন তিনি ইতিপূর্বে ভারতে গিয়েছিলেন কিনা ? ভিসা দেওয়া থাকরে Yes-এ ক্লিক করুন। না গিয়ে থাকলে Noতে ক্লিক করুন।
  • Address: এখানে তিনটি ঘর দেওয়া আছে। পাশপোর্ট হোল্ডারের কাছ থেকে ভারতে যেখানে গিয়েছিল সেখানকার ঠিকানা জেনে নিয়ে লিখুন।
  • Cities in India Visited: গিয়ে থাকলে জায়গার নাম লিখুন। না গিয়ে থাকলে কিছু লেখার দরকার নেই।
  • Last Indian Visa No: পাশপোর্ট বইতে দেখুন শেষ ভারতীয় ভিসার নং । সেটি লিখুন।
  • Type of Visa: যে ভিসাটি লেখা আছে সেটি লিখুন। লেখা না থাকলে Turist লিখে দিন।
  • Place of Issue : ভিসাতে লেখা আছে কোন জায়গা থেকে দেওয়া হয়েছিল। ভিসাটি দেখে সেই মত লিখে দিন। যেমনBANGLADESH,DHAKA.
  • Date of Issue: ভিসাতে লেখা আছে কোন তারিখে ভিসা দেওয়া হয়েছিল। ভিসাটি দেখে সেই মত লিখে দিন।
  • Has permission to visit or to extend stay in India previously been refused? If so, when and by whom (Mention Control No. and date also) – এখানে Never লিখে দিন।
  • Countries Visited in Last 10 years Countries visited in last 10 years – যদি নতুন পাশপোর্ট হয় তবে None লিখবেন। আর যদি পুরানো পাশপোর্ট হয় তবে কোন কোন দেশের ভিসা লাগানো আছে সেই সব দেশের নাম লিখুন।
  • Reference Name in India: পাশপোর্ট হোল্ডারের কাছ থেকে শুনে নিয়ে লিখবেন। নিজে বানিয়ে লিখতে যাবেন না। তাতে বিপদ হতে পারে।
  • Address : পাশপোর্ট হোল্ডারের কাছ থেকে শুনে নিয়ে লিখবেন। নিজে বানিয়ে লিখতে যাবেন না। তাতে বিপদ হতে পারে।
  • Phone : Reference in India-এর ফোন নং পাশপোর্ট হোল্ডারের কাছ থেকে শুনে নিয়ে লিখবেন।
  • Reference Name in BANGLADESH: পরিচিত হলে নিজের নাম লিখতে পারেন। অপরিচিত হলে পাশপোর্ট হোল্ডারের কাছ থেকে শুনে নিয়ে লিখবেন।
  • Address : পরিচিত হলে নিজের ঠিকানা লিখতে পারেন। অপরিচিত হলে পাশপোর্ট হোল্ডারের কাছ থেকে শুনে নিয়ে লিখবেন। নিজে বানিয়ে লিখতে যাবেন না। তাতে বিপদ হতে পারে।
  • Phone : পরিচিত হলে নিজের ফোন নং লিখতে পারেন। অপরিচিত হলে পাশপোর্ট হোল্ডারের কাছ থেকে শুনে নিয়ে লিখবেন।
  • Save and Continue-এ ক্লিক করে ৪র্থ পাতায় যাবেন।

চতুর্থ পাতা

  • Place/Name of Hotel : যে স্থানে যাবেন সে স্থানটির নাম লিখতে হবে। গ্রাম হলে গ্রামের নাম যেমন BADURIA, MOSLANDAPUR, আর শহর হলে KOLKATA, BARASAT নাম লিখতে হবে। প্রয়োজন বোধে আপনি পাশপোর্ট হোল্ডারের কাছ থেকে স্থানটির নাম ভাল করে শুনে নিয়ে লিখবেন। প্রয়োজন হলে ইংরেজিতে বানানটাও করে নিতে পারেন। মনে করবেন এ বিষয়ে কোন লজ্জা করবেন না। তা হলে এ্যামবেসী থেকে ফেরত পাঠাবে সামন্য ভুলের জন্য। আর আপনার দুর্নাম হবে।
  • Address of Place/Hotel : যে স্থানে যাবে সে স্থানটির পূর্ন ঠিকানা লিখতে হবে। ফিল্ডটি ছোট দেখতে হলে কি হবে, লেখার জন্য জায়গা পেয়ে যাবেন।
  • State : কোন রাজ্যে যেতে চায় সেই রাজ্যের নাম যেমন কেহ কলিকাতা বা তার আশপাশ যাবার জন্য আপনি West Bangal সিলেক্ট করে দিবেন। আবার অন্য জায়গা হলে সেই স্থানটির নাম যেমন UP, MP, KARNATAK এভাবে লিখতে পারেন।
  • District : ঠিকানা ভালভাবে জেনে নিয়ে অবশ্যই জেলার নাম লিখবেন। যেমন, North 24 Parganas. Kolkata, Birbhum ইত্যাদি।
  • Email : জানা না থাকলে লেখার দরকার নেই।
  • Telephone No : যে ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানে পাশপোর্টধারী যাবে সেই টেলিফোন নম্বর কিম্বা মোবাইল নম্বর অবশ্যই লিখতে হবে।
  • এখানে ১-২ লাইন পুরনে করেই Continue-তে ক্লিক করুন।

পঞ্চম পাতা

  • এই পেজটি খুব দরকারী। নিচের দিকে তাকন সিলেক্ট ডেট অপশন আছে। ওখানে ডেট পাওয়া না গেলে তিন দিনের মাধ্যে যে কোন সময় ডেট নিয়ে নিবেন। আর সে সময়ে ডেট নিতে হলে আপনার Web File No টা এবং জন্ম তারিখ দরকার হবে।
  • Applicant Name : MOST ROWSHANARA
  • Web File No : BGDD43183511
  • Select Date : এখানে ক্লিক করলে কয়েকটি তারিখ বেরিয়ে আসেবে। আপনার প্রয়োজন মত তারিখ সিলেক্ট করে দিন।
  • Confirm The Appointment : এখানেই ক্লিক করেই আপনার ফর্মের কাজ শেষ। এখন PDF ফর্মাটের সকল তথ্য সম্বলিত একটি ডকুমেন্ট আসেব। দুই পৃষ্ঠার ডকুমেন্ট। প্রিন্টার অন করে প্রিন্ট বাটমে ক্লিক করুন অথবা মেনু বারের ফাইল অপসন থেকেও প্রিন্ট নিতে পারেন অথবা Ctrl+P কমান্ড দিয়েও প্রিন্ট নিতে পারেন।
  • কোন কারন বসত যদি আপনি ডেট সিলেক্ট করতে না পারেন তবে আপনার Web File No, জন্ম তারিখ ও Passport No আমাদের কাছে পাঠিয়ে দিন। আমরা আপনার ফাইলে ডেট সিলেক্ট করে দিব। ডেট সিলেক্ট হয়ে গেলে আমরা আপনাকে ফোন করে জানিয়ে দিব। এর পর আপনি Reprint অপশনে গিয়ে আপনার PDF ফাইলটি ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে নিন।

 

Indian Visa Center Holidays for 2014

২০১৪ সালের ইন্ডিয়ান ভিসা সেন্টারের ছুটি সমুহ
# ছুটি সমুহ তারিখ দিন
পহেলা জানুয়ারী ১লা জানুয়ারী বুধবার
ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী ১৪ই জানুয়ারী মঙ্গলবার
গণতন্ত্র দিবস ২৬শে জানুয়ারী রবিবার
চাইনিজ নতুন বছর ৩১শে জানুয়ারী শুক্রবার
হোলী ১৭ই মার্চ সোমবার
মহাবীর জয়ন্তী পূর্ণীমা ১৩ই এপ্রিল রবিবার
ডঃ বি.আর. আম্বেদ্কারের জন্মদিন ১৪ই এপ্রিল সোমবার
গুড ফ্রাইডে ১৮ই এপ্রিল শুক্রবার
ঈদ-উল-ফিতর ২৯শে জুলাই মঙ্গলবার
১০ স্বাধীনতা দিবস ১৫ই আগষ্ট শুক্রবার
১১ মালয়েশিয়ান জাতীয় দিবস ১৬ই সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার
১২ মহাত্মাগান্ধীর জন্মদিন ২রা অক্টোবর বৃহঃস্পতিবার
১৩ দুর্গা পূজা (বিজয়া দশমী) ৩রা অক্টোবর শুক্রবার
১৪ ঈদ-উল-আযহা ৬ই অক্টোবর সোমবার
১৫ দিপাবলী ২৩শে অক্টোবর বৃহঃস্পতিবার
১৬ মহররম ৪ঠা নভেম্বর মঙ্গলবার
১৭ বড়দিন ২৫শে ডিসেম্বর বৃহঃস্পতিবার

 

2 Comments

  1. 1
  2. 2

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>