Cricket, Sports

BPL T20 2012: Destiny Achieved Title Sponsorship

Destiny achieved the Title Sponsorship of BPL T20

Destiny-Boishakhi-BPL-2012

Destiny-Boishakhi BPL 2012

The title sponsor of the Bangladesh Premier League (BPL) Twenty20 Cricket Tournament was announced at a local hotel in the city on Saturday.

Destiny Group was the highest bidding company to achieve the rights of the title sponsor from the Indian event management company Game On Sports Management with an amount of Tk. 7.50 crore for season 1 ‘2012’. In this regard, a Memorandum of Understanding (MoU) was signed with Game On Sports Management and Destiny Group on Saturday.

The tournament will now be known as Destiny-Boishakhi BPL 2012. In this case, Baisakhi Television, a concern of Destiny Group now own the local broadcasting rights from yet-to-be-launched Channel 9, the original holder of the broadcasting rights. Channel 9 also singed a deal with ESPNStar for international broadcasting of the BPL matches.

Anjan Ganguly, director of the Game on Sports Management Company and Rofiqul Amin, chairman of the Destiny Group, signed the agreement on behalf of their respective organisations.

Destiny-2000-Bangladesh

Destiny 2000 Bangladesh

The chairman of the Destiny Group handed over the cheque of Tk. 7.50 crore during the signing agreement ceremony.

Rofiqul Amin said after signing agreement that, “We feel proud of becoming a part of the forthcoming biggest domestic flagship event in the country-BPL. At the same time we are grateful to saturate ourselves for the first time with the cricket which is earned name and fame for the country from international arena.”

Boishakhi-TV-Bangladesh

Boishakhi TV

“We have just started our journey and made a contract with the official sponsorship company with handsome money only for the first year.”

“It is not a scanty amount for the title sponsor of the tournament. Even it would not be right to compare with the title sponsorship and the ticket selling and distribution sponsorship of the meet,” Sirajuddin Mohammad Alamgir, member secretary of BPL governing body and director of the Bangladesh Cricket Board replied to a query.

 

বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে বড় পরিসরে যুক্ত হল ডেসটিনি গ্রুপ। দেশের অন্যতম সেরা গ্রুপ অব কোম্পানিটি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) টাইটেল স্পন্সর হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। যার বদৌলতে বিপিএলের নামকরণ হচ্ছে ‘ডেসটিনি-বৈশাখী বিপিএল’।
বিপিএলের আয়োজন স্বত্ব ৬ বছরের জন্য কিনে নেয় ভারতভিত্তিক ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠান ‘গেম অন স্পোর্টস ম্যানেজমেন্ট’। বিপিএলের টাইটেল স্পন্সর হতে তাই ডেসটিনি গ্রুপকে চুক্তি স্বাক্ষর করতে হয়েছে গেম অন স্পোর্টস ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে। গতকাল ডেসটিনি গ্রুপ ও গেম অন স্পোর্টস ম্যানেজমেন্টের মধ্যে টাইটেল স্পন্সরশিপের চুক্তির আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়েছে। গুলশানের হোটেল ওয়েস্টিনে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ডেসটিনি গ্রুপের পক্ষে চুক্তি স্বাক্ষর করেন গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রফিকুল আমীন এবং গেম অনের পক্ষে স্বাক্ষর করেন ব্যবস্থাপনা পরিচালক অঞ্জন গাঙ্গুলি।
চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডেসটিনি গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ গোফরানুল হক, টুর্নামেন্টের মিডিয়া পার্টনার চ্যানেল নাইনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এনায়েতুর রহমান বাপ্পী, বৈশাখী টেলিভিশনের সিইও মনজুরুল আহসান বুলবুল, বিপিএল আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব সিরাজুদ্দিন মোহাম্মদ আলমগীর। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ৭ কোটি ৫০ লাখ টাকার বিনিময়ে ডেসটিনি গ্রুপ বিপিএলের প্রথম আসরের জন্য টাইটেল স্পন্সর হয়েছে।
চুক্তি সম্পাদনের আগে মঞ্চে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ডেসটিনি গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রফিকুল আমীন। স্বাগত বক্তব্যে তিনি বলেছেন, ‘বিপিএলের মতো একটি আসরের টাইটেল স্পন্সর হতে পেরে আমরা আনন্দিত ও গর্বিত। বিশ্ব ক্রীড়াঙ্গনে যে খেলাটি বাংলাদেশের নাম উজ্জ্বল করেছে এবং সামনের সারিতে নিয়ে এসেছে। এই খেলাটিতে আমরা জনপ্রিয়তা পেয়েছি, সাফল্যও আসতে শুরু করেছে। ফলে খেলার প্রতি আমাদের যথেষ্ট দুর্বলতা রয়েছে। সেই দুর্বলতা থেকেই বিপিএলের সঙ্গে যুক্ত হওয়া। এর মাধ্যমে দেশের তরুণ সমাজকে উদ্দীপ্ত করতে চাই।’৭
টাইটেল স্পন্সর হওয়া প্রসঙ্গে রফিকুল আমীন বলেছেন, ‘দেশকে গড়ে তোলার জন্য ডেসটিনি গ্রুপ নিজেদের অবস্থান থেকে ভালো কাজ করছে। সেই কাজের ধারাবাহিকতায় আমরা ক্রিকেটের বিশাল আয়োজনে সম্পৃক্ত হলাম। প্রাথমিকভাবে এক বছরের জন্য চুক্তি হলেও আমরা এখানে থাকতেই এসেছি।’

More and more